৮ ধরনের ফলে ওজন কমে

10
ছবি: সংগৃহীত

ওজন বেড়ে যাওয়া আজকাল প্রায় প্রত্যেকের জীবনেই একটি বিরাট সমস্যা। নিজেকে সুন্দর পরিপাটি রাখতে সবাই সুন্দর স্লিম স্বাস্থের অধিকারী হতে চায়। কিন্তু ওজন কমাতে গিয়ে আমাদের কিছু ভুল ধারণা রয়েছে। তবে কেবল ফল খেয়েই কমানো যায় ওজন। চলুন জেনে নিই সেইসব-

১. পেঁপে: সুমিষ্ট পাকা পেঁপেতে রয়েছে উচ্চমাত্রার ফাইবার, ম্যাগনেসিয়াম, ফোলেন, দস্তা, খনিজ ও ভিটামিন ‘এ’। ভিটামিন ‘বি’ কার্ডিও ভাসকুলার সিস্টেমকে সুষ্ঠু রাখে এবং কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। হজমের ক্ষমতা বৃদ্ধি করে যা ওজন কমাতে দারুণ কার্যকর।

২. আনার: এই ফলের ঔষধি গুণ রয়েছে। শক্তিশালী অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রোগ প্রতিরোধে কাজ করে। অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান ডায়াবেটিস, আলঝেইমার্স, অন্যান্য ক্রনিক এবং স্থূলতার সমস্যা দূর করে।

৩. কালো আঙুর: যাঁরা উচ্চমাত্রার চিনিযুক্ত খাবার এড়িয়ে যেতে চান তাঁরা এই ফল বেছে নিতে পারেন। ডায়াবেটিসের রোগীদের জন্য উপকারী ফল। মাইগ্রেনের সমস্যায়ও বেশ ভূমিকা রাখে। হজমের সমস্যা দূর করে এর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ওজন হ্রাসে বেশ কার্যকর।

৪. আনারস: ভিটামিন ‘সি’, ফোলেন, বিটাক্যারোটিন আর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট অ্যাজমার বিরুদ্ধে লড়াই করে। এর ফাইবার হজমের যেকোনো অসামঞ্জস্যতা দূর করে। এতে বাড়তি ওজনের ভার বইতে হয় না।

৫. পিচ: মানসিক চাপ ও শঙ্কা দূর করতে সক্ষম। ‘এ’ ও ‘সি’-এর মতো ভিটামিন ত্বকের বলিরেখা কমিয়ে আনে। স্থূলতার কারণে দেখা দেওয়া ডায়াবেটিস ও কার্ডিও ভাসকুলার ডিজিজ প্রতিরোধ করে। চুল পড়া সমস্যা থেকে মুক্তি দেয় পিচ। পটাশিয়াম, ফ্লুরাইড ও আয়রনের মতো খনিজে পূর্ণ একটি ফল।

৬. অ্যাভোকাডো: ১০টিরও বেশি ভিটামিন ও মিনারেল মেলে একটি ফলেই। পটাশিয়াম, ভিটামিন ‘বি৫’, ‘বি৬’, ‘ই’, ‘সি’ বা ‘কে’—কী নেই এতে। এর ক্যালরির ৭৭ শতাংশই ফ্যাট। কিন্তু এর প্রায় পুরো ফ্যাটটুকুই ফলিক এসিড। ওজন না বাড়তে দিতে চাইলে অ্যাভোকাডোর শরণাপন্ন হতে পারেন।

৭. কমলা: সিট্রাস গোত্রের ফল, যা ফাইবারে পূর্ণ। কিডনির পাথর দূরীকরণে বেশ কাজ করতে সক্ষম। দেহের ক্ষতিকর কোলেস্টেরল কমাতে কমলার জাদুকরী গুণ রয়েছে। কাজেই ওজন ক্ষয়ে বেশ পারদর্শী।

৮. কলা: দেহকে কার্বোহাইড্রেট গ্রহণে বাধা দেয় কলা। এতে শক্তি উৎপাদনে দেহ কার্বোহাইড্রেটের পরিবর্তে ফ্যাট পোড়ায়। এই ফলের পটাশিয়াম পেশি গঠনে সহায়ক। আর এ কাজে ফ্যাট পুড়িয়ে কার্যোদ্ধার হয়। ওজন কমাতে বেশ উপকারী। আরো বহু স্বাস্থ্যগুণ রয়েছে ফলটির।

সূত্র: এনডিটিভি