২০২১ সাল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে থাইল্যান্ডের সমুদ্র সৈকত

158

সমুদ্র সৈকতে একবার গেলে বারবার যেতে মন চায়, এ যেন একে নেশা। যে সমুদ্র সৈকতে সারা বছর পর্যটকদের ভিড় লেগে থাকত। যে সমুদ্র সৈকত নিয়ে হলিউডে একটা আস্ত সিনেমা হয়ে গেছে। সেই সমুদ্র সৈকত ২০২১ সাল পর্যন্ত সাধারণের জন্য বন্ধ থাকবে বলে জানিয়ে দিল প্রশাসন। অথচ এই বিচে সারাবছরই বিদেশি পর্যটকেরা ভিড় করে আসতেন। ফলে এখানকার অর্থনীতি বিকশিত হত।

স্থানীয়রা রোজগার করার সুযোগ পেতেন। সেই অতি জনপ্রিয় থাইল্যান্ডের ফি ফি লেহ দ্বীপের মায়া বে বিচ বন্ধ করে দিল প্রশাসন। গত বছরই বন্ধ করা হয় বিচটি। এবার জানিয়ে দেওয়া হল তা বন্ধ থাকবে ২০২১ সাল পর্যন্ত।

অর্থনীতির কথা ভুলে কেন এমন সিদ্ধান্ত? থাই প্রশাসন জানাচ্ছে প্রতিদিন মায়া বে বিচে প্রায় ৫ হাজার পর্যটক ভিড় জমাতেন। ফলে সেখানকার প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছিল। প্রবল ক্ষতি হচ্ছিল প্রবালের। বহু প্রবাল মরে যাচ্ছিল। ফলে সেখানকার প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষা করতেই এই সিদ্ধান্ত।

আপাতত ২০২১ সাল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে এই বিচ। যা থাইল্যান্ডে ঘুরতে আসা বহু বিদেশি পর্যটকেরই অন্যতম গন্তব্য ছিল।

২০০০ সালে হলিউডে একটি সিনেমা তৈরি হয়। সেই ‘দ্যা বিচ’ সিনেমার শ্যুটিং হয় এই মায়া বিচেই। অসীম নৈসর্গিক সৌন্দর্যে ভরা এই বিচের চারধার উঁচু উঁচু সবুজ পাহাড়ে ঘেরা।

নীল আকাশের নিচে সাদা বালির তট। আর নীলচে সবুজ সমুদ্রের জল। সব মিলিয়ে ছুটি কাটানোর এক স্বর্গীয় পরিবেশ। সেই মায়া বিচের মায়া আপাতত ৩ বছর ত্যাগ করতে হবে পর্যটকদের।