স্তন্যদাত্রী মায়েদের জন্য উপকারী হাসনাহেনা ফুল

72
ছবি: সংগৃহীত

হাসনাহেনা বাংলাদেশের একটি জনপ্রিয় ফুল। এটি একটি লতানো ঝোপাল ধরনের গাছ। হাসনা হেনা সাদামাটা ফুল, তবু কিছুতেই এড়ানো যাবে না।

এমনই গন্ধের জোয়ার যেখানেই ফুটুক জানান সে দেবেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রজাতি এরা। বছরে কয়েকবার ফুল ফোটে।

ডালের গায়ে অজস্র সাদা সাদা তিল থাকে। এদের নাম ল্যান্টিসেল। পাতা লম্বাটে, ১৪.৪ থেকে ৩-৪ সেমি মসৃণ।

পাতার গোড়া বা ডালের ও আগায় ফুলের ছোট ছোট থোক বা ডালের ও আগার ফুলের ছোট ছোট থোকা সন্ধ্যায় ফোটে ও সুগন্ধ ছড়ায়।

সাদাটে ফুল নলাকার, দুই সেমি লম্বা ও ৫ পাপড়ি। ফল গোল ও সাদা হয়ে থাকে। এই গাছ কলমের মাধ্যমে চাষ করা হয়ে থাকে।

এই ফুলের যেমন সুগন্ধ ও সৌন্দর্য্য রয়েছে তেমনি এর কিছু গুণ ও উপকারিতা রয়েছে। যেমন-

স্তন্যদাত্রী মায়েদের জন্য
প্রথমে হাসনাহেনা পাতার রস করে নিতে হবে। এরপর এর সাথে নারকেলের দুধ ভালো করে মিশিয়ে কয়েকদিন সকালে সেবন করলে স্তন্যদাত্রী মায়েদের উপকার হয়।

জ্বর দূর করতে
প্রথমে হাসনাহেনার গাছের মূলের রস করে নিতে হবে। এরপর এটি নিয়মিত সেবন করলে জ্বর দ্রুত ভালো হয়ে থাকে।

ক্রিমি নিরাময়ে
ক্রিমি রক্তাভ হলে হাসনাহেনা গাছের পাতার রস নিয়ে অল্প গরম করে সেবন করলে ক্রিমিতে উপকার পাওয়া যায়।

প্রসাব পরিষ্কার করতে
হাসনাহেনার পাতা থেঁতো করে এই রস খেলে প্রসাব পরিষ্কার হবে ও যন্ত্রণা থাকবে না।

আমাশয় নিরাময়ে
হাসনাহেনার পাতা থেঁতো করে কাঁচা দুধের সাথে মিশিয়ে একটু উষ্ণ করে সেবন করলে রক্ত আমাশয়ে উপকার পাওয়া যায়।

সূত্র: আয়ুর্বেদিক টিপস