রোজায় যেসব খাবার খাবেন না

20

প্রচণ্ড গরমে রোজা রাখা বেশ কষ্টকর। কারণ গরম মানুষের শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়। এতে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। তবে কিছু খাবার থেকে বিরত থেকে এবং সঠিক খাবার নির্বাচন করে অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি কমানো সম্ভব।

সেহরিতে সঠিকভাবে খাদ্য নির্বাচন করে কিছু বিষয় মেনে চললে গরমে সারাদিন সুস্থভাবেই কাটাতে পারবেন। লম্বা সময়ের রোজায় খুব বেশি কষ্ট হবে না।

যেসব খাবার থেকে বিরত থাকবেন
অনেকেরই সকালে চা-কফি পানের অভ্যাস রয়েছে। তাই রোজায় তারা সেহরিতে সকালের চা-কফি পানের অভ্যাসটি সেরে নেন। কিন্তু এই কাজটি করতে যাবেন না। চা-কফির ক্যাফেইন দেহকে পানিশূন্য করে ফেলে। তাই সেহরিতে চা-কফি পান করা থেকে বিরত থাকুন।

অনেকেই পাউরুটি বা শুকনো খাবার খেয়ে রোজা রাখেন। গরমের এই রোজার সময়ে তা একেবারেই করা যাবে না। বিশেষ করে প্রসেসড কার্বোহাইড্রেট খাবার স্বাভাবিকভাবে আপনার দেহে শক্তি সরবরাহ করবে কিন্তু খুব অল্প সময়ের জন্য। তারপর আপনার দেহকে পানিশূন্য করে একেবারেই দুর্বল করে তুলবে। সুতরাং শুকনো ও প্রসেসড কার্বোহাইড্রেট থেকে দূরে থাকুন।

মিষ্টি জাতীয় খাবার অতিরিক্ত খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। মিষ্টি খাবার আপনার দেহের এনার্জি লেভেল একেবারেই নষ্ট করে দেবে। দিনের বেলায় যার কারণে আপনি দুর্বলতা অনুভব করবেন।

সেহরিতে ভারি খাবার এবং অতিরিক্ত তেল চর্বি ধরনের খাবার একেবারেই খাবেন না। বিশেষ করে খিচুড়ি, পোলাও বা বিরিয়ানি জাতীয় খাবার তো একেবারেই নয়। কারণ এসব খাবার সারাদিনই আপনার পেটের সমস্যা ও অস্বস্তির সৃষ্টি করবে।