মোটরযানের রুট পারমিট ইস্যু ও নবায়ন করবেন যেভাবে

42

মোটরযানের রুট পারমিটে নিতে চাচ্ছেন, কিন্তু প্রক্রিয়াগুলো জানা নেই। তাইতো? আপনার জন্যই এই লেখা। জেনে নিন কিভাবে করতে হয় মোটরযানের রুট পারমিটের আবেদন।

রুট পারমিটের আবেদনপত্রের সাথে রেজিষ্ট্রেশন সার্টিফিকেট, হালনাগাদ ফিটনেস, সার্টিফিকেটস, ট্যাক্সটোকেন, ইনসিওরেন্স সার্টিফিকেট, চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স ও নিয়োগপত্র এবং কনডাক্টরের লাইসেন্স ও নিয়োগপত্রের সত্যায়িত কপি দাখিল করতে হয়।

পূর্ববর্তী রুট পারমিটের মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখের মধ্যে পারমিট নবায়নের জন্য আবেদন করা না হলে মেয়াদ শেষের পরদিন থেকে নির্ধারিত হারে (বর্তমানে দৈনিক ৫ টাকা) অতিরিক্ত ফি প্রদান করতে হয়।

পাশাপাশি দু-জেলার মধ্যে চলাচলকারী সাধারণ পরিবহন/প্রাইভেট পরিবহন (মালবাহী ট্রাক, ভ্যান, ট্যাংকলরি ইত্যাদি) মোটরযানের রুট পারমিটের আবেদন নির্ধারিত ফরমে সংশ্লিষ্ট এলাকার আঞ্চলিক পরিবহন কমিটি (আরটিসি) এর সদস্য-সচিব (বিআরটিএর বিভাগিয় উপ-পরিচালক (ইঞ্জি:/সহকারি পরিচালক (ইঞ্জি:)/ মোটরযান পরিদর্শক) বরাবর আবেদন করতে হয়।

দুয়ের অধিক কিন্তু একই বিভাগের আওতাধীন রুটে চলাচলকারী স্টেজক্যারেজ (বাস, মিনিবাস), কনট্রাক্টক্যারেজের রুটপারমিট সংশ্লিষ্ট বিভাগিয় কমিশনার কর্তৃক ইস্যু/নবায়ন করা হয়। এই ক্ষেত্রেও নির্ধারিত ফরমের আবেদন বিভাগীয় শহরের সংশ্লিষ্ট বিআরটিএ অফিসে দাখিল করতে হয়।

একের অধিক বিভাগের আওতাধীন আন্তঃজেলা রুটে চলাচলকারী স্টেজক্যারেজ (বাস, মিনিবাস) ও কনট্রাক্টক্যারেজ এর আবেদন বিআরটিএ সদর কার্যালয়, এলেনবাড়ি, তেজগাঁও, ঢাকা অফিসে দাখিল করতে হয়।