বেতন বাড়লে কী করবেন?

47

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বছরের একটি নির্দিষ্ট সময় তাদের কর্মীদের বেতন বাড়িয়ে থাকেন। অন্যদিকে কর্মীরাও বেতন বৃদ্ধির অপেক্ষায় থাকেন। অনেকেই হয়তো বেতন বাড়ার আগেই চিন্তা কষতে থাকেন যে কি কি করবেন। তেমন চিন্তাবিদদের জন্য বিশেষজ্ঞরা একটি পরামর্শ দিয়েছেন। চলুন জেনে নিই সেসব-

বিনিয়োগ
ছোটখাটো খাতে বিনিয়োগের অনেক পথ থাকে। সেগুলোতে মন দিতে পারেন। বাড়তি পয়সা বিনিয়োগে গেলে ভবিষ্যতে একটা আয়ের পথ খুলে যাবে। চাকরির পাশাপাশি একটা ব্যবসা থাকা খারাপ নয়।

ঋণ পরিশোধ
মার্কিন গবেষণাপ্রতিষ্ঠান ‘ব্যাংকরেট’ বলছে, ২২ শতাংশ কর্মী বেতনের বাড়তি অংশ দিয়ে ঋণ শোধ করতে চান। বিশেষ করে ক্রেডিট কার্ডের বিল, ব্যক্তিগত ও ব্যাংকের ঋণ পরিশোধে গুরুত্ব দেন তাঁরা। বিশেষজ্ঞরা এ সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। তাই যতটুকু বেতন বেড়েছে, তা দিয়ে দেনার বোঝা হালকা করুন।

‘জরুরি তহবিল’
জীবনের অতি মূল্যবান ‘সঙ্গী’ বলতে পারেন। চিকিৎসা বা হঠাৎ বড় ধরনের খরচ সামলাতে এর বিকল্প নেই। প্রত্যেকেরই এই তহবিল থাকা আবশ্যক। বেতন বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তি টাকা দিয়ে ওই তহবিলকে স্বাস্থ্যবান করে তুলুন। নইলে যেকোনো সময় বিপদের মুখে পড়তে পারেন।

অবসরের জন্য
বেতনের বাড়তি অর্থ অনায়াসে অবসরের জন্য জমাতে পারেন। এমনিতেই প্রত্যেকের আয়ের ১০ শতাংশ অবসরের জন্য সঞ্চয় করা উচিত।

ছুটি কাটান
মনের জন্য বিনিয়োগ এটা। পেরেশানিগুলোকে চটজলদি বিদায় জানাতে ছুটি কাটিয়ে আসুন। প্রতিদিন ক্ষয়ে যেতে থাকা প্রাণশক্তি ফিরে আসবে। বাড়তি আয় দিয়ে এক-দুইবার ছুটি কাটিয়ে আসাটা মোটেও বোকামি নয়। এতে মানসিক চাপ দূর হবে।

কিছু শিখতে
এটাও এক ধরনের বিনিয়োগ। পেশাসংশ্লিষ্ট নতুন কোনো দক্ষতা অর্জনের জন্য একটা কোর্স করতে পারেন। যে চাকরি করছেন, তাতে আরো এগিয়ে যেতে এই কোর্স ভূমিকা রাখবে। এমন কিছু শিখুন, যার সম্পর্কে আপনার কোনো ধারণা নেই।