ফেসবুক ব্যবহার করলে বাড়বে আয়ু !

43

বর্তমান নাগরিক জীবনে অবসরের পুরোটাই নিয়ে নিয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বিশেষ করে ফেসবুক। আর এসবের কারনেই ফেসবুক ব্যবহারকে যারা অযথা বা সময়ের অপচয় বলে আসছিলেন তাদের মুখে এবার চুনকালি দিলেন বিশেষজ্ঞরা।

অনেক দিন ধরেই ফেসবুকের ভালো-মন্দ নিয়ে নানা আলোচনা, সমালোচনা-বিশ্লেষণ হয়ে আসছে। অনেক নেতিবাচক বার্তা দিয়েছেন বিশ্লেষকরা। কিন্তু এবার ফেসবুক ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন ইতিবাচক বার্তা দিলেন একটি গবেষণা দল।

পিএনএএস নামের এক জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় বলা হয়েছে, ফেসবুক তথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লুকিয়ে রয়েছে জীবনের নির্যাস। বেশি মাত্রায় ফেসবুক ব্যবহার করলে বাড়বে আয়ু। তবে এখানে আরেকটা শর্তও আছে। শর্তটা হল কেবলমাত্র ভার্চুয়াল পরিসরে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ব্যবহার করলেই চলবে না; বাস্তবেও বজায় রাখতে হবে সামাজিকতার চর্চা।

ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া সান ডিয়েগোর গবেষক উইলিয়াম হবস জানিয়েছেন, ফেসবুক এবং সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ব্যবহার করে সামাজিকতা বজায় রাখা স্বাস্থ্যের পক্ষে ভাল। এতে শরীর এবং মন দুইই ভাল থাকে। কিন্তু গোটা বিষয়টি কেবলমাত্র ভার্চুয়াল রিয়ালিটির মধ্যে আটকে রাখলে হবে না। বাস্তবেও সামাজিক করতে হবে। তবেই মিলবে উপকার।

প্রায় ছয় মাসের এই সমীক্ষায় দেখা যায়, যারা ফেসবুকে দৈনন্দিন সময় কাটান তাদের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা বেশি। বন্ধুদের সঙ্গে কথাবার্তা কিংবা ফেসবুকে মনের কথা লেখা, এই প্রতিটি বিষয়ই মন হালকা করতে বেশ সাহায্য করে। পাশাপাশি, বন্ধুতা বজায় রাখতে সাহায্য করে এই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট। আর তাই জীবনকে সতেজ রাখতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এসব সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলো।