টাক পড়া রোধ করে মেহেদি পাতা

47
ছবি: সংগৃহীত

মেহেদি পাতা চেনেন না এমন লোক হয়তো পাওয়া যাবে না। বাংলাদেশেল সব এলাকাতে এই পাতার অনেক জনপ্রিয়তা রয়েছে।

প্রাকৃতিক ভাবে চুল রং করতে এবং চুলের গোড়া মজবুত করতে মেহেদি পাতা অতুলনীয়। মেহেদি বলতে প্রথমেই মাথায় আসে রাঙ্গা হাতের বাহারি নকশা।

অনেকে আবার চুলের যত্নে মেহেদি পাতাকেই প্রথম সারিতে রাখে। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না হাত সাজানো আর চুলের যত্ন ছাড়াও মেহেদি পাতা শরীরের জন্য অনেক উপকারী।

চলুন জেনে নেই মেহেদি পাতা কতভাবে আমাদের উপকার করে থাকে-

পায়ের জ্বালা পোড়া রোধ করে
পায়ের পাতার জ্বালাপোড়া রোধ করতে মেহেদি পাতার ভুমিকা গুরুত্বপূর্ন। পায়ের পাতাতে জ্বালা পোড়া করলে মেহেদি পাতার পেস্ট লাগিয়ে রাখতে হবে। তাহলে আস্তে আস্তে জ্বালাপোড়া কমে যাবে।

মাথাব্যাথা হ্রাস করে
মেহেদি গাছের ফুল মাথা ব্যাথা দূর করতে সাহায্য করে। মেহেদি গাছের ফুল পেস্ট করে এর সাথে ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এটি কপালে অথবা ব্যাথার স্থানে লাগিয়ে রাখুন। এছাড়া আপনি মেহেদির পেস্টও ব্যবহার করতে পারেন।

মুখের ঘা সারাতে
মেহেদি দিয়ে তৈরী করে নিতে পারেন মাউথ ওয়াশ। মেহেদি পাতা গুড়ো পানিতে গুলিয়ে নিন। এবার এটি দিয়ে কুলকুচি করুন। এটি মুখের ঘা দ্রুত ভাল করে থাকে এবং মুখ জীবাণুমুক্ত করে তোলে।

টাক পড়া রোধ
মেহেদি পাতা টাক পড়া রোধ করতে সাহায্য করে। মেহেদির পাতা বেটে এর রস মাথায় দিলে আপনার চুল পড়া কমে যাবে।

খুশকি দূর করতে
খুশকি চুলের সবচাইতে বড় শত্রূ। সরিষার তেল, মেথি ও মেহেদি পাতা সিদ্ধ করে একসাথে মাথায় ব্যবহার করুন। এর এক ঘন্টা পর শ্যাম্পু করে ফেলুন। তাহলে খুশকির সমস্যা দূর হবে।

ঘামাচির জ্বালাপোড়া রোধ করতে
মেহেদির পেস্ট পিঠ, ঘাড় এবং ঘামাচি আক্রান্ত স্থানে লাগান। এটি ঘামচি, চুলকানি এবং জ্বালাপোড়া হ্রাস করতে সাহায্য করবে।

বাতের ব্যাথা রোধে
বাত এবং বাতজনিত সকল সমস্যার সমাধান করে থাকে মেহেদির তেল। ব্যাথার স্থানে মেহেদির তেল মেসেজ করে লাগিয়ে নিন। ভালো ফল পাবেন।

সূত্র: আয়ুর্বেদিক টিপস