ঘুরতে যাওয়ার প্রস্তুতি

15

কোথায় ভ্রমণ করবেন তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল ভ্রমণ প্রস্তুতি। ভ্রমণের আগে ভালো প্রস্তুতির ওপর নির্ভর করবে ভ্রমণ কতটা আনন্দময় হবে। একটু এদিক-সেদিক হলেই আনন্দের ভ্রমণ মাটি হয়ে যেতে পারে! তাই ভ্রমণ শুরুর আগেই পরিকল্পনা করা জরুরি।

১. বেড়াতে যাওয়ার আগে ভ্রমণসংক্রান্ত কাগজপত্র ভালোভাবে পড়ুন। যেখানে যাবেন, সেই জায়গা সম্বন্ধে খোঁজখবর নিন। সেখানকার আবহাওয়া সম্পর্কে জেনে নিন। থাকার হোটেল বা রিসোর্ট নির্বাচন করে আগে থেকে বুকিং দিন।

২. কোথায় যাচ্ছেন সেই বিষয়ে ফেসবুক, টুইটার, ব্লগে স্ট্যাটাস দিতে পারেন। এর ফলে সবাইকে শুধু বিষয়টি জানালেই হবে না, ওই এলাকায় আপনার কোনো বন্ধু থাকলে প্রয়োজনে সেও সাহায্য করতে পারবে।

৩. যে জায়গায় যাচ্ছেন, চেষ্টা করুন সেখানকার স্থানীয়দের সঙ্গে যোগাযোগ করতে। ফলে পরিবেশটি সম্বন্ধে অনেক কিছু জেনে নিতে পারবেন।

৪. ভ্রমণের সময় চাকাযুক্ত ব্যাগ ব্যবহার করতে পারেন। এটি বহন করতে সুবিধা হবে এবং কষ্ট কম লাগবে।

৫. পাসপোর্টের একটি ফটোকপি সব সময় হাতের কাছে রাখুন। ফ্লাইটের টিকিট, ট্রাভেল ভিসা সঙ্গে রাখুন।

৬. ছোট নোটপ্যাড ও কলম সঙ্গে রাখুন। সঙ্গে ক্যামেরা নিতে ভুলবেন না।

৭. একটি জিপলক ব্যাগ ব্যবহার করুন, যাতে করে পানি এবং বিভিন্ন টয়লেটসামগ্রী সঙ্গে নিতে পারেন।

৮. বেশি পোশাক নিয়ে ব্যাগ ভারী না করাই ভালো। যেখানে যাচ্ছেন সেই জায়গার আবহাওয়া সম্বন্ধে জেনে নিয়ে শীত পোশাক বা গরমের পোশাক নিয়ে নিন। সঙ্গে প্রয়োজনীয় প্রসাধনী রাখুন। সানস্কিন লোশন, সানব্লক ইত্যাদি সঙ্গে রাখুন।

৯. বিমানে ভ্রমণের ক্ষেত্রে বিমানবন্দরে পৌঁছে বোর্ডিং পাস নিয়ে নিন। বিমানে বসে অবশ্যই প্রথম কাজ হবে সিটবেল্ট বেঁধে নেওয়া। অক্সিজেন মাস্ক কোথায় রাখা আছে এবং কীভাবে ব্যবহার করতে হবে বিমানবালার কাছ থেকে জেনে নিন।

১০. বিমান উড্ডয়নের সময় একটু ঝাঁকি দেয়। এ সময় নিম্ন রক্তচাপের রোগী হলে একটু সমস্যা হতে পারে। এ ক্ষেত্রে আসনে হেলান দিয়ে চোখ বন্ধ করে রাখতে পারেন।

১১. যাত্রা শুরুর সময় মালপত্রের একটি তালিকা তৈরি করুন এবং শেষবারের মতো দেখে নিন সব ঠিকঠাক আছে কি না।

১২. বিমানে সুযোগ থাকলে আগমন/নির্গমন ফরম পূরণ করে ফেলতে পারেন।

১৩. বিমানে ধূমপান করার চেষ্টা করবেন না এবং পানীয় গ্রহণে মাত্রা ছাড়াবেন না।

১৪. যে কোনো যানবাহন থেকে নামার সময় কোনো মালপত্র ফেলে গেলেন কি না সেদিকে খেয়াল রাখুন। নামার সময় তাড়াহুড়ো করবেন না।

১৫. একটি কাগজে নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর লিখে লাগেজের ভেতর সেঁটে রাখুন। যাঁরা ভ্রমণে যাচ্ছেন, তাঁদের প্রত্যেক সদস্যের নাম, ঠিকানা, ফোন নম্বরসহ জরুরি তথ্য কাগজে লিখে রাখুন।

১৬. প্রয়োজনীয় ওষুধ, গজ, ব্যান্ডেজ, জীবাণুনাশক মলম ইত্যাদি নিতে ভুলবেন না। সঙ্গে নেওয়া এসব ওষুধপত্রের একটি তালিকা আগেভাগেই তৈরি করে রাখতে পারেন।