কেমন যৌনসঙ্গী চান নারীরা, জানা দরকার পুরুষের

345

২৫০০ জন নারী-পুরুষকে নিয়ে একটি সমীক্ষা রিপোর্ট বেরিয়েছে ফিলজফিক্যাল ট্রানজাকশন অফ দ্য রয়্যাল সোসাইটি-তে। সেখানে ছয়টি ক্যাটাগরির অন্যতম ছিল শারীরিক মিলন।

৭২ রকমের কাল্পনিক অবস্থা তুলে ধরে বলা হয়েছিল, কোনটা বিরক্তিকর নয় আর কোনটা চরম বিরক্তিকর। দেখা গিয়েছে, মেয়েরা শারীরিক মিলন করতে পছন্দ করে, সুতরাং তা বিরক্তিকর নয়। কিন্তু, যখন ঝুঁকিপূর্ণ শারীরিক মিলনের কথা আসছে, তখন চরম বিরক্তিতে তাদের ভ্রূ কুঁচকে যাচ্ছে।

ঝুঁকিপূর্ণ শারীরিক মিলন বলতে কী বোঝায়, তার ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে সমীক্ষায়। কোনও জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি অবলম্বন না করে অর্থাৎ সুরক্ষা না নিয়ে শারীরিক মিলন করা হল ঝুঁকিপূর্ণ শারীরিক মিলন।

এক্ষেত্রে অবাঞ্ছিত সন্তান আসার সমূহ সম্ভাবনা থাকে, যা নারীদের কাছে কাম্য নয়। আরও দুইটি বিষয়কে মেয়েরা ঝুঁকিপূর্ণ শারীরিক মিলনের তালিকায় রাখে। তা হল, সঙ্গীর নোংরা থাকা। কিছু পুরুষ আছে, যারা যৌনাঙ্গ পরিষ্কার করে না এবং নোংরা থাকে।

সমীক্ষা বলছে, এমন নোংরা সঙ্গীর সঙ্গে শারীরিক মিলনের সময় নারীরা চরম বিরক্তি প্রকাশ করে।

মাসিকের সময় মেয়েরা শারীরিক মিলন করতে চায় না। পুরুষসঙ্গী এ নিয়ে চাপাচাপি করলে মেয়েরা চরম বিরক্ত হয়। এছাড়া, যে সব পুরুষ বেশ্যালয়ে যায়, তাদের প্রেমিকা বা বউ তাদের সঙ্গে শারীরিক মিলন করার সময় ভীত থাকে। কারণ যৌনরোগ ছড়ানোর ভয় থাকে। বহুগামী পুরুষদের সঙ্গে শারীরিক মিলন করার বিষয়টিও মেয়েদের কাছে চরম ঝুঁকির। গর্ভবতী মেয়েরা আরও বেশি খুঁতখুঁতে হয়, কারণ তারা তাদের ভাবী সন্তানের স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তিত থাকে।

সমীক্ষকদের বক্তব্য, মেয়েদের মন জয় করতে হলে পুরুষদের ঝুঁকিপূর্ণ শারীরিক মিলনের বিষয়টি ত্যাগ করতে হবে। কন্ডোম ব্যবহার করতে হবে এবং বহুগামী হওয়া চলবে না। তবেই আপনার ‘জানে মন’-এর হৃদয় জয় করা যাবে।