করোনার নমুনা সংগ্রহে সারাদেশে ১০০ বুথ বসাচ্ছে ব্র্যাক

31
ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাস সংক্রমণে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে নমুনা সংগ্রহের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে সহায়তা করতে বুথ স্থাপন করছে ব্র্যাক। আগামী সপ্তাহের মধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে প্রায় অর্ধশত বুথ বসানো হবে।

সারা দেশে মোট ১০০টি বুথ স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে সংস্থাটির।

এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ব্র্যাক বর্তমানে ল্যাব টেকনোলজিস্ট নিয়োগ, বুথ স্থাপন ও নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবে পাঠানোর ব্যবস্থা করছে। টেকনোলজিস্টদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। এই বিষয়ে খুব শিগগিরই দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করা হবে।

ব্র্যাকের স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও জনসংখ্যা কর্মসূচির সহযোগী পরিচালক মোর্শেদা চৌধুরী বলেন, গত সোমবার পর্যন্ত ঢাকার ১৪টি স্থানে ১৭টি বুথ স্থাপিত হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, হাসপাতালে স্থাপিত বুথগুলো চলবে সেখানকার কর্মী ও ব্যবস্থাপনার মাধ্যমেই। অন্য বুথগুলোয় দায়িত্ব পালন করবেন দুজন করে ব্র্যাকের টেকনোলজিস্ট। এর একেকটি বুথে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কার্যক্রম চলবে। প্রতিদিন ৪০ জনের নমুনা সংগ্রহ করা যাবে। যাঁদের করোনা উপসর্গ যেমন জ্বর, সর্দি, কাশি, গলাব্যথা ও শ্বাসকষ্ট রয়েছে, তাঁরা নমুনা দিতে পারবেন। এর আগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্ধারিত ফরমে নাম-ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। নমুনা সংগ্রহের পর তা পরীক্ষার জন্য পাঠিয়ে দেওয়া হবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্ধারিত ল্যাবে। পরীক্ষার ফলাফল যার যার ফোন নম্বরে এসএমএসের মাধ্যমে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

নমুনা সংগ্রহের ক্ষেত্রে দুটি পদ্ধতি অনুসরণ করা হবে। প্রথমত জাতীয় নির্দেশনা অনুযায়ী প্যারামেডিকরা সন্দেহভাজন রোগীদের বাছাই করবেন। দ্বিতীয়ত মেডিকেল কলেজ, হাসপাতাল অথবা এর আশপাশে স্থাপিত নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্রে রেফার করা রোগীদের নমুনা নেওয়া হবে। নমুনা সংগ্রহের ক্ষেত্রে বয়স্ক মানুষ, যাঁদের ডায়াবেটিস, রক্তচাপের মতো অনিরাময়যোগ্য রোগ আছে, তাঁরা, চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী বা যাঁরা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কাজ করেন তাঁরা অথবা যাঁরা অফিসের পরিবেশে কাছাকাছি বসে কাজ করেন, তাঁদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।