ওষুধ নয়, ২০ মিনিটে করোনা ধ্বংস করবে চীনা রোবট

127

বিশ্ব এখন করোনা জ্বরে আক্রান্ত। বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ছে মুত্যু। বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশের সরকার নিরাপদ থাকতে রাস্তাঘাট ও অন্যান্য জায়গায় কীটনাশক ছড়াতে শুরু করেছে।

করোনাভাইরাসের প্রকোপ থেকে বাঁচার রাস্তা খুঁজছে গোটা বিশ্ব। কিন্তু যেখান থেকে এই রোগ ছড়াতে শুরু করেছিল সেই চিন এই ভাইরাস রোধে কী ব্যবস্থা নিয়েছে! ওষুধ নয়, কীটনাশক নয়। চারপাশ করোনামুক্ত করতে চিন একটি রোবটের ব্যবহার শুরু করেছে। কথা বলা সেই রোবট করোনার জীবাণু ধ্বংস করছে মাত্র ২০ মিনিটে।

চিনের বিভিন্ন হাসপাতালে ইতিমধ্যে কাজ করা শুরু করেছে সেই ইউভিডি রোবট। এটি মূলত একটি লাইট রোবট। জীবাণুনাশক আলোকরশ্মির সাহায্যেই এই রোবট করোনাভাইরাসের ছড়ানো আটকাচ্ছে।

ইউভিডি রোবটসের ভাইস প্রেসিডেন্ট সাইমন এলিসন বলেছেন, উহান থেকে এশিয়া এবং ইউরোপের বিভিন্ন স্থানেও পৌঁছে গেছে রোবটটি। ইতালি এটিকেনার ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছে। আমরা সবাইকে সহায়তা করার জন্য প্রস্তুত।

ডেনমার্কের ওডেনসেই শহরে তৈরি হচ্ছে ইউভিডি রোবট। ব্লু ওশান রোবোটিক্স কোম্পানি এটির প্রস্তুতকারক। উচ্চ আলোকশক্তিসম্পন্ন ইউভিডি রোবট করোনাভাইরাস ধ্বংস করতে পারে কি না তা নিয়ে এখনও পরীক্ষা চলছে। তবে এটি যে বহু মারণ ভাইরাস মারতে পারে তা প্রমাণিত।

আটটি বাল্বের সমন্বয়ে তৈরি এই রোবট থেকে ইউভি-সি আল্ট্রাভায়োলেট আলো নির্গত হয়। কোনও জায়গায় জনমানবশূন্য করে এই রোবট আলো বিকিরণ শুরু করে। এই রোবটের মূল্য ৬৭ হাজার মার্কিন ডলার। মার্স এবং সার্স ভাইরাসের সঙ্গে করোনাভাইরাসের অনেক মিল। তাই এই রোবট করোন মোকাবিলায় কার্যকরী হবে বলে মনে করছে প্রস্তুতকারক সংস্থা।

ব্লু ওশান রোবোটিক্স ও ওডেন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা চয় বছর ধরে এই রোবট প্রস্তুতের চেষ্টা চালাচ্ছিলেন।