ইন্টি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্পট এডমিশন ঢাকায়

429

বিশ্বের নামিদামি বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা গ্রহনের স্বপ্ন এদেশের বহু তরুন-তরুনীর। সেই সব স্বপ্নবাজদের জন্য ‘বিশ্বের জন্য প্রস্তুত হও’ স্লোগান নিয়ে রাজধানীর উত্তরায় এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে স্টুডেন্ট ভিসা কনসালটেন্সি প্রতিষ্ঠান ‘এডুকেশন অ্যাসেসমেন্ট কনসালটেন্সি (ইএসি)’।

গত ১৩ জুলাই শনিবার প্রতিষ্ঠানটির নিজস্ব অফিসে (বাড়ি-৬১, গাউসুল আজম এভিনিউ, সেক্টর-১৪, উত্তরা, ঢাকা) আয়োজিত ‘স্পট এডমিশন’ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইন্টি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, মালয়েশিয়া এর প্রতিনিধি মালা রাঘাভান। এডুকেশন অ্যাসেসমেন্ট কনসালটেন্সি (ইএসি) এর পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুর রহমান এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুমানা সুলতানা।

অনুষ্ঠানে আগত আগ্রহী তরুন-তরুনী, অভিভাবকদের উদ্দেশ্য মালা রাঘাভান বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর বহু ছাত্র-ছাত্রী উচ্চশিক্ষার জন্য পাড়ি জমায় মালয়েশিয়ায়। এদের অনেকেই স্বপ্ন পূরণের আগেই ঝরে পড়ে। বিভিন্ন কনসালটেন্সি প্রতিষ্ঠানের ভুল তথ্যের কারনে তাদের উচ্চশিক্ষা গ্রহণের স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যায়। স্বপ্নের চুড়ায় পৌঁছানো সম্ভব হয় না। ইন্টি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এই প্রতিষ্ঠানটির (এডুকেশন অ্যাসেসমেন্ট কনসালটেন্সি) সাথে কাজ করছে বহুবছর ধরে। আমরা সরাসরি তত্বাবধায়ন করছি। এখান থেকে ভুল তথ্য পাওয়া কিংবা প্রতারিত হওয়ার কোন সুযোগ নেই।’

ইএসি এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুর রহমান বলেন, ‘এডুকেশন অ্যাসেসমেন্ট কনসালটেন্সি (ইএসি) একটি শিক্ষা ভিত্তিক কাউন্সেলিং প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান। গত পাঁচ বছর ধরে বিদেশের বহু বিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজ করে আসছে। আমরা কাজ করছি মালয়েশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্রের নামিদামি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে। এর মধ্যে মালয়েশিয়াতে অনেকগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে কাজ করছি। ইন্টি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি তাদের মধ্যে একটি। আমি নিজে উচ্চশিক্ষার জন্য গিয়েছিলাম অস্ট্রেলিয়াতে। কনসালটেন্সি প্রতিষ্ঠানের ভুল তথ্য নিয়ে পড়তে গিয়ে আমার যে অভিজ্ঞতা হয়েছে তা থেকেই এই সেক্টরে কাজ করার উদ্যোগ নিয়েছি। আমি চাই না কেউ ভুল তথ্য নিয়ে উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাড়ি জমাক।’

তিনি আরও বলেন, ‘আন্তর্জাতিক প্লাটফর্মে প্রতিযোগিতায় ছাত্র-ছাত্রীদের যেসব প্রয়োজনীয় দক্ষতা দরকার তা আমাদের দেশের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে কম আছে। ফলে প্রতিযোগিতায় টিকে থেকে ভালো ফল করা সম্ভব হয় না। তাই আমরা আগ্রহী ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে কথা বলে তাদের মধ্যে থাকা যোগাযোগ দক্ষতা এবং ব্যক্তিত্ব যাচাই-বাছাই করে স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে নিচ্ছি। আমরা তাদের একজন পরামর্শদাতা।’

ইএসি এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুমানা সুলতানা বলেন, ‘কর্মজীবনের সাফল্যের জন্য পাওয়ার প্ল্যান’, ‘বিশ্ব আপনার জন্য অপেক্ষা করছে’ এই ধরনের ইভেন্টস এবং কর্মশালার মতো নানা উদ্যোগ নিয়ে কাজ করছে এডুকেশন অ্যাসেসমেন্ট কনসালটেন্সি (ইএসি)। আমাদের লক্ষ্য ছাত্র-ছাত্রীদের বিকাশ ও শিক্ষাদান করা এবং তাদেরকে ‘বিশ্বের জন্য প্রস্তুত’ করা। আমরা উচ্চশিক্ষায় আগ্রহী ছাত্র-ছাত্রীদের প্রস্তাবিত কোর্স সম্পর্কে জ্ঞান দিয়ে, অতিরিক্ত পাঠ্যক্রমের সাথে যুক্ত করে, ভাষা সম্পর্কে আস্থা তৈরি, দলবদ্ধকরণের মতো প্রয়োজনীয় দক্ষতা অর্জনের জন্য নানা কর্মশালার আয়োজন করে থাকি।’