মেয়েদের মোটা হওয়ার ৬ কারণ

বাড়তি ওজনের কারণে বাড়ছে ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হার্টের অসুখ, স্ট্রোক ও ক্যানসারের মতো বড় বড় ব্যাধিও। অকালে মৃত্যুবরণ করছেন অনেকে। বিশ্বজুড়ে স্থূলতার মোটা হওয়ার হার ক্রমেই বাড়ছে। আর এক্ষেত্রে পুরুষদের তুলনায় মেয়েদের ওবেসিটির হার বেশি। আরও অবাক করার বিষয় হচ্ছে শহরের মেয়েরাই এই স্থূলতার সমস্যায় বেশি ভুগে থাকেন।

সম্প্রতি কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, শহরের মেয়েরা গ্রামের মেয়েদের তুলনায় বেশি মোটা হয়। মুটিয়ে যাওয়ার সঙ্গে শহরের জীবনযাপন, খাদ্যাভ্যাস, পরিবেশদূষণ ও জিনগত কারণ দায়ী।

মেয়েরা অল্পতেই মোটা হয় কেন?
(১) শহরের মেয়েরা সকালের ব্রেকফাস্ট নিয়মিত করে না। সকালের ব্রেকফাস্ট না খেলে মোটা হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে।

(২) ফাস্টফুড জাতীয় খাবার বেশি খায়। আর এটি মোটা হওয়ার এটি সবচেয়ে বড় কারণ। জার্নাল অব নার্সিং অ্যান্ড হেলথের তথ্যমতে, তারা কায়িক পরিশ্রম কম করে। এতে অতিরিক্ত ক্যালরি জমে ওজন বাড়ে।

(৩) শহর এলাকার মেয়েরা টিভি, ল্যাপটপ, ফোনে সময় বেশি দেয়। শহরের মেয়েরা গাড়ির ব্যবহার বেশি করে, কম হাঁটে। এটি তাদের স্থূল করে তোলে।

(৪) তারা মাছ কম, মাংস জাতীয় খাবার ও সফট ড্রিঙ্ক জাতীয় পানীয় বেশি খায়। এতে ওজন বেড়ে যায়।

(৫) শহরের মেয়েরা রাতের খাবার দেরি করে খায়। সাইকোলজি টুডের গবেষণায় দেখা যায়, রাতের খাবার দেরি করে খেলে মোটা হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। এ ছাড়া শহরের মেয়েরা রাত জাগে, ঘুমায় কম। এটিও তাদের মোটা হওয়ার জন্য দায়ী।

(৬) চকলেট, চিপস, আইসক্রিম বেশি খায়। এই অভ্যাস তাদের মোটা করে দেয়। এছাড়া হরমোনের সমস্যাও মোটা হওয়ার একটি বড় কারণ। শহরের দূষিত পরিবেশ ও জিনগত কারণ অনেকাংশে মেয়েদের মোটা হওয়ার জন্য দায়ীএমনটাই উঠে এসেছে বিভিন্ন গবেষণায়।