কেএফসিতে পরীক্ষক সেজে খাবার খেয়ে ছাত্র গ্রেফতার

এক বছর ধরে জালিয়াতি করে কেএফসিকে বোকা বানিয়েছেন তিনি। অলঙ্করণে তিয়াসা দাস।
দক্ষিণ আফ্রিকার কাজুলু-নাটাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সে। বয়স ২৭ বছর। সে দেশের কেএফসির বিভিন্ন আউটলেটে গিয়ে সে বলত, গুণমান বিচারের জন্য কেএফসির হেড কোয়ার্টার থেকে পাঠানো হয়েছে তাঁকে। এই বলে বিভিন্ন আউটলেট থেকে বিনা পয়সায় খাবার খেয়ে চলে যেত সে। গত এক বছর ধরে এই কাজ চালিয়ে যাওয়ার পর অবশেষে তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

দক্ষিণ আফ্রিকার ওই ছাত্রের নাম অবশ্য প্রকাশ করা হয়নি। কিন্তু বিভিন্ন আউটলেটে গিয়ে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে নিজেকে গুণমাণের বিচারক হিসাবে পরিচয় দিত সে। তারপর আউটলেট কর্মীদের বোকা বানিয়েপছন্দের খাবার খেত মনের সুখে। গত এক বছর ধরে এই গল্পকে সম্বল করেই বিভিন্ন আউটলেটে হানা দিয়েছে সে।

এই ঘটনার কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রথমবারের জন্য আপলোড করেন কেনিয়ার সাংবাদিক টেডি ইউগেনে। তারপরই বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় মেতেছে নেট দুনিয়া।